ব্যাকগ্রাউন্ড

ফেইসবুকে!

আমি না আমার ছায়ার বিভ্রম

আমি চশমা ছাড়া কাছে কম দেখি,
আমার ছায়াটি চশমাছাড়া কম দেখে দূরে।
আমি যখন এক হাত দূরে কিছুই দেখতে পাচ্ছি না,
আমার ছায়াটি তখন চিৎকার করে বলছে দেখ দেখ,
একগুচ্ছ চুল!
আমি তখন কিছুই দেখতে পেলাম না।
এর পর সে আবার চিৎকার করে বললো,
দেখ, হাতের কব্জি,নোখ!
এর পরে....আরো এর পরে....আরো আরো!
আমি তখনোও কিছুই দেখিনি!
আমার ছায়াটা কাঁদছে,
ভয়ে ক্ষোভে রাগে কাঁপছে!
আর আমি বটবৃক্ষ!
বড় হয়েছি বলে আমি আমার ছায়াটির মাথায় সান্ত্বনার হাত রাখলাম,
তার রক্তশূন্য ভয়ার্তমুখ!
আমার মাথার উপর দিয়ে তখন, আম্পানের তান্ডব চলছে।
বুকের ভেতর চলছে বিক্ষুব্ধ বঙোপসাগরের ক্রুদ্ধ ঢেউয়ের গর্জন!
ঢেউয়ের আঘাত, ঝড়ের আঘাত সয়ে সয়ে আমি যখন,
দৃশ্যটার ভেতর থেকে বেরিয়ে আসলাম;
ক্ষাণিক দূরে দেখলাম,
ভাঙাচোরা পৃথিবীর ধ্বংসস্তূপের উপর পড়ে আছে,
একটা মেয়ের রক্তভেজা চুল, হাতপায়ের নোখ, হাড়গোড়!
পায়ের নূপুর,নাকছাবি!
দলিত মথিত মুর্ছিত একটা পচাগলা স্বপ্ন!
ওরা পলিথিনে মুড়িয়ে ময়লার মতো ওই স্বপ্নটাকে তুলে দিলো,
সিটিকর্পোরেশনের ময়লার গাড়িতে!
আমি আর আমার ছায়াটি তখন,
আগুনগলা মোমের মতো উষ্ণ অশ্রুর স্রোতে কষ্টনদীর গহীন তলে অন্ধকারে পতিত।
গাড়ি ঠেলে নিয়ে যাচ্ছে চারটি বালক।
আমি আর আমার ছায়া আমরা কেউ সেই গাড়ি, সেই বালকদের দেখতে পাচ্ছি না!
আকাশের মেঘগুলি দুম করে যেন ভরদুপুরে মাটিতে নেমে এলো!
চারপাশে রাস্তার চারপাশে মানুষ,
পিঁপড়ের মতো ছুটছে আর ছুটছে!
কেউ জানলো না কিছুই!
আমি আর আমার ছায়াটি জানলাম,
একটা অকালবোধন স্বপ্নাহত জীবনের পরিণতি!
পৃথিবী কি জানলো, এই মেয়েটা কারো বোন ছিলো?
কিংবা কারো সন্তান ছিলো?

ছবি
সেকশনঃ কবিতা
লিখেছেনঃ শামুক তারিখঃ 07/06/2020
সর্বমোট 1214 বার পঠিত
ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুণ

সার্চ

সর্বোচ্চ পঠিত

এই তালিকায় একজন লেখকের সর্বোচ্চ ২ টি ও গত ৩ মাসের লেখা দেখানো হয়েছে। সব সময়ের সেরাগুলো দেখার জন্য এখানে ক্লিক করুন