ব্যাকগ্রাউন্ড

ফেইসবুকে!

কৌতুক: পুলিশ নিয়োগের ইন্টারভিউ

পুলিশের এসআই পদে নিয়োগ দান চলছে। এসপি সাহেব নিজেই মৌখিক পরীক্ষা নিচ্ছেন। লাস্ট ক্যান্ডিডেট এর সাথে কিছু কথা বলার পরে এসপি জিজ্ঞেস করলেন, ‘বলুনতো গীতাঞ্জলি কে লিখেছে?’ লোকটি উত্তর দেয়ার আগেই এসপি’র ফোন বেজে উঠলো। তিনি ফোন ধরে স্যার স্যার করা শুরু করে দিলেন, স্যার আমি এখনই নিজে গিয়ে একশন নিচ্ছি.. এই বলে ফোন রেখে তাড়হুড়ো করে বাইরে বেরিয়ে এসে সামনে ওসিকে পেয়ে বললো, ‘আমার রুমে একজন লোককে রেখে এসেছি, গিয়ে জিজ্ঞেস করবে, গীতাঞ্জলি কে লিখেছে এবং উত্তরটা লিখে রেখে পরে আমাকে দিবে।’ ওসি বললো, ‘স্যার কোন চিন্তা কইরেন না আমি এক্ষুণি জেনে নিচ্ছি।’ দুই ঘণ্টা পরে এসপি ফিরে রুমের ভিতর থেকে কান্নাকাটি, চিৎকার চেঁচামেচি শুনতে পেলেন, অবাক হয়ে রুমে ঢুকে দেখেন চাকুরীপ্রার্থী হাত-পা বাঁধা অবস্থায় মেঝেতে পড়ে গোংগাচ্ছে, নাকে-মুখে রক্ত.. এসপি ওসিকে জিজ্ঞেস করলেন, ‘কী হচ্ছে, আমি তোমাকে একটা প্রশ্নের উত্তর জানতে বলেছি, আর তুমি এর কী হাল করেছো!’ ওসি উত্তর দিলো, ‘স্যার, এই ব্যাটাতো মহা বদমাশ, আমি জিজ্ঞেস করলাম, গীতাঞ্জলি কে লিখেছে, সে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর নামে একজনের নাম বলে..কিছুতেই নিজের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে না। বললাম, বাসায় রেইড দিয়ে মদের বোতল উদ্ধার করবো, তাও শয়তানটা ভয় পায় নাই, বারবার একই নাম বলে। পরে দিলাম বাঁশ ডলা, ডিম থেরাপি, আরো সব ঔষধ.. আমাকে এতক্ষণ কষ্ট দিয়ে এই মাত্র স্বীকার করছে যে, কোন রবীন্দ্রনাথ-টাথ না, ও নিজেই গীতাঞ্জলি লিখছে এবং সাথে ওর ভাইও জড়িত ছিলো..!’

ছবি
সেকশনঃ সাধারণ পোস্ট
লিখেছেনঃ যুক্তিযুক্ত তারিখঃ 22/08/2021
সর্বমোট 403 বার পঠিত
ফেসবুকের মাধ্যমে কমেন্ট করুণ

সার্চ